1Z0-061  | 9A0-385  | 70-411  | 220-901  | 700-037  | 70-270  | c2010-652  | 70-417  | 810-403  | 70-494  | MB6-702  | 200-310  | 210-065  | 70-486  | 640-916  | 642-732  | 220-802  | 350-018  | 200-105  | 1z0-808  | c2010-657  | 70-466  | 70-178  | 640-692  | 70-177  | 2V0-621  | 1z0-434  | 000-104  | 1Z0-060  | 70-488  | 74-343  | 350-029  | 300-206  | 70-346  | 100-101  | 300-135  | 350-060  | 70-347  | 400-101  | 350-080  | 210-260  | 000-080  | 642-999  | 500-260  | 70-480  | 642-997  | 70-410  | 000-017  | 200-120  | 300-320  | 70-461  | 101-400  | 300-209  | 1Z0-144  | 000-106  | 600-455  | MB5-705  | 70-483  | 70-413  | 70-532  | 200-125  | 70-981  | 70-697  | MB2-704  | 70-246  | 70-487  | 70-534  | 000-089  | 70-533  | 210-065  | 70-980  | 210-060  | 70-680  | 300-085  | 70-462  |

Our Products

আমাদের সয়া

—-মানবদেহের জন্য পাঁচটি উপাদান অত্যাবশ্যকীয় (১) প্রোটিন (২) কার্বো-হাইড্রেট (৩) ফাইবার (৪) ভিটামিন ( ৫) মিনারেলস। সয়াবিনের মাঝে বিদ্যমান।

২৫০ গ্রাম সয়াবিন থেকে যে পরিমাণ প্রোটিন পাওয়া যায় তা ৩ লিটার দুধ বা ১ কেজি খাসির মাংষ বা ২৪ টি ডিম থেকে পাওয়া প্রোটিনের সমান।

যে কোন শস্যের তুলনায় সয়াবিনে ক্যালসিয়াম, আয়রণ, ফসফরাস ও জিঙ্কসহ বেশীরভাগ মিনারেলস আছে দ্বিগুণেরও বেশী। আছে সোডিয়াম আর আছে প্রয়োজনীয় ভিটামিন সবগুলো। ভিটামিন সি এবং ই এর খুবই ভাল উৎস এটি।

1

(১) হেলথ-এইড ডায়া কেয়ার

অতিরিক্ত শর্করা ও কম পরিমাণ আমিষ এবং খাদ্যের সকল উপাদান প্রতিদিন আমরা খাবার তালিকায় সঠিকভাবে রাখতে না পারায় মরণব্যাধি ডায়াবেটিক, ক্যান্সার ও হৃদরোগসহ অনেক জটিল রোগগুলো দিন দিন বেড়েই চলছে। আর এই ভুল খাদ্যাভ্যোসের কারণে আমাদের শরীরের অগ্নাশয়ের বিটাসেলগুলো দুর্বল এমনকি নিষ্ক্রিয় হয়ে যায়, ফলে স্বাভাবিক ভাবে ইনসুলিন উৎপান হয় না। এই সময় রক্তের গ্লুকোজের মাত্রা নিয়ন্ত্রন করার জন্য কৃত্রিম ইনসুিলিন নিতে হয়। সয়াতে আইসোফ্লোভন্স বিদ্যামন থাকায় অগ্নাশয়ের বিটাসেলগুলো আবারও সক্রিয় হয়ে উঠে বিধায় বিটাসেল পুনরায় ইনসুলিন উৎপাদনে সাহায্য করে। তখন শরীরে প্রাকৃতিকভাবেই ইনসুলিন উৎপাদিত হয়।

সেবন বিধি : দৈনিক সকালে ও বিকালে ৪-৫ চা চামচ (২০-২৫) গ্রাম হেলথ-এইড পাউডার এক গ্লাস বিশুদ্ধ পানিতে মিশিয়ে খেতে হবে অথবা চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী সেব্য।

3(২) হেলথ এইড হাই-প্রোটিন:

হেলথ এইড হাই-প্রোটিন এনার্জি ও ওজন বৃদ্ধিসহ সুস্বাস্থ্য গড়ে তুলতে সহায়তা করে।
বাচ্চাদের দ্রুত বেড়ে উঠতে ও মাংশপেশী গঠনে সহায়তা করে।
শিশুদের বুদ্ধিমত্তা ও স্মৃতি শক্তি বৃদ্ধিতে হেলথ এইড হাই-প্রোটিন কার্যকর ভূমিকা রাখে।
গর্ভবতী ও দূর্বল নারীদের জন্য অত্যন্ত কার্যকরী।
স্নায়ু, ত্বক, চুল ও লিভারের স্বাভাবিক কার্যকারিতা অক্ষুন্ন রাখে।
রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

সেবন বিধি: দৈনিক সকালে ও বিকালে ৪-৫ চা চামচ (২০-২৫ গ্রাম) হেলথ-এইড পাউডার এক গ্লাস বিশুদ্ধ পানিতে মিশিয়ে খেতে হবে অথবা চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী সেব্য।

7(৩) হেলথ-এইড স্লিম এন্ড বিউটি

* হেলথ্ প্রোটিন ও খাবারের অন্যান্য উপাদানের ঘাটতি মিটিয়ে অতিরিক্ত এনার্জি প্রাধান করে । মাসে ২-৪ কমাতে সহায়তা করে।
* হেলথ্-এইড স্লিম এন্ড বিউটি রোগ প্রতিরোগ বাড়ায় এবং বার্ধ্ক বিলম্বিত করে।
* পুরূষের বিভিন্ন সেক্স হরমোন বৃদ্ধি করে এবং যৈৗণ ক্ষমতা বাড়ায় ।
* বৃদ্ধদের হাড়ক্ষয় রোধ এবং অতিরিক্ত এনার্জি প্রাধানে হেলথ্-এইড স্লিম এন্ড বিউটি অত্যন্ত উপকারী ।
* হেলথ্-এইড স্লিম এন্ড বিউটি ক্যন্সার প্রতিরোধ সহায়তা করে ।
* এটি চাইনিজ ও আমেরিকা গবেষণায় প্রমাণিত, যারা নিয়মিত সয়া খান তারা ৭৭% স্টোকের ঝুকি হতে মুক্ত থাকেন।
* মহিলাদের বন্ধ্যাত্ব, স্নায়ুবিক দূর্বলতা, স্রাবজনিত সমস্যা ব্রেস্ট ক্যন্সারে হেলথ্-এইড স্লিম এন্ড বিউটি বিশেষ উপকারী ।

সেবন বিধি: দৈনিক সকাল রাতের খাবারের পরিবর্তে ৪-৫চা চামাচ (২০-২৫গ্রাম)হেলথ্-এইড স্লিম এক গ্লাস বিশুদ্ধ পানিতে মিশিয়ে খেতে হবে অথবা চিকিসকের পরামর্শ অনুযায়ী সেব্য ।